"গল্প" বিভাগের পোস্ট ক্রমানুসারে দেখাচ্ছে

দীপঙ্কর বেরা

৪ বছর আগে লিখেছেন

অনেক খুঁজে

(অণুগল্প)
-আজ একটু পাশে বসো , কিছু কথা বলি , জানো , আর পারছি না , এবার যে যার মত থাকি চল ।
-ঠিক বলেছ , আমিও আর পারছি না । তুমি তো বিন্দাস ভালই আছ ।
-সে তো তোমার দৃষ্টিতে । আমিও তো মনে করি তুমি বিন্দাস আছ ।
-কবি কবি না হয়ে একটু খোলসা কর তো বাপু ।
-এই যে তুমি কবিতা ভালোবাসো না , তাতে আমার কষ্ট ।
-ভুল । তোমার ইড়িং বিড়িং ভালোবাসি না ।
-আমার ভাবনায় তুমি মেলাতে পারছ না ।
-অচল পুরোন ভাবনা আর চলে না । যুগের সঙ্গে তাল মেলাও ।
-কিন্তু... continue reading

৪০২

তামান্না তাবাসসুম

৪ বছর আগে লিখেছেন

চিকি মাংকি

-এই চিকিমাংকি...।মামা তোকে তো চেনার ই উপায়নাই (পিঠ চাপকে)
- এত্তদিন পর ! শালি এখনও এই নাম এ ডাকলি...
-এভাবে কাউ ভুলে যায়? যা হোক, এই পিচ্চি কে?
-চুপ ও ক্লাস  9এ পড়ে, আমার gf,  আমাকে দেখিএ মেয়েটাকে বলে, আমার কলেজের দোস্ত  
এদিকে মেয়ে টা রাগ এ ফুসতে  থাকে।তুমি নাবলেছ তুমি মেয়েদের সাথে কথা বল না, তাহলে এ কে? তোমার  গায়ে হাত দিল কেন? বলাই হাটা আরম্ভ।
সিজানও বেবি বেবি বলে পিছু হাটা শুরু করে।পিছন ফিরে বলে, দোস্ত মান্দ করিস না, এলাকায় গেলে তোর বাসায় ঢূ মারব ।  
আমি থ মেরে দাড়িএ থাকি...
কিন্তু দাড়িয়ে... continue reading

৫৪২

ইফ্ফাত রুপন

৪ বছর আগে লিখেছেন

একটি ছোট্ট সাক্ষাৎকার

লাইট ঠিকমতো রেডি করেছ তো?
জী ম্যাডাম। আফনে কওনের আগেই রেডি কইরা ফালাইসি।
আর শট গুলো ঠিকমতো রেডি করেছ তো? শট রেডি না থাকলে কিন্তু সর্বনাশ হয়ে যাবে। আমরা কিন্তু বেশিক্ষণ সময় পাব না। যা করার এই কম সময়ের মধ্যেই করতে হবে। বারে বারে বলছি কোন কিছু যেন বাদ না যায়। আর কোন কিছুতেই যেন ভুল না হয়।
আরে অইব না আফা। আফনে একদম টেনশন নিয়েন না। আফনে খালি মাইয়াডারে ঠিকমতো ম্যানেজ করেন। বাকিডা আমগো উপর ছাইড়া দেন।
গুড। আচ্ছা মবিন তুমি কি শুদ্ধ ভাষায় কথা বলতে পারো না? তোমাকে না কতবার বলেছি আমার সাথে এভাবে বিশ্রী... continue reading

৫৮১

তাপস কিরণ রায়

৪ বছর আগে লিখেছেন

দূরের আলেয়া (শিশু-কিশোর গল্প)

চারদিকে ঘুটঘুটে অন্ধকার। লোডশেডিং চলছিল। গ্রাম-গঞ্জ জাগায় এমনি হয় ! লাইট চলে যাবার ঠিকানা থাকে না–কখন থাকবে আর কখন যাবে, কেউ বলতে পারে না।
তিন বন্ধুতে বসে গল্প জমিয়ে ছিলাম। খেলার গল্প, ঘোরা বেড়ানোর গল্প, আগামী পিকনিক কবে হবে তার গল্প। এমনি সময় লাইট গোল ! চারদিক ঘুটঘুটে অন্ধকার হয়ে গেলো। আমি তাড়াতাড়ি মোম বাতি জ্বালিয়ে সেন্টার টেবিলে রাখলাম। মোমের আলো ঘন অন্ধকারকে তত পরিষ্কার করতে পার ছিল না–শিখা থেকে থেকে কেঁপে উঠছিল। আমাদের গল্পের মোড় ঘুরে গেলো। মনে হয় পরিবেশকে ঘিরে, আসরে এবার ভূতের গল্পের উত্থাপন হল।
ভূত আছে কি নেই এ নিয়ে কথা চলছিল। টপিক বড় জব্বর !... continue reading

৫৭২

রাজু আহমেদ

৪ বছর আগে লিখেছেন

প্রেমাতোপর

নিলান্তির ঘোর যেন কিছুতেই কাটছে না । বাবা-মাকে নিয়ে রাতুলের বিদায়ের পর ২০ মিনিট অতিবাহিত হয়ে গেছে । ক্ষনে ক্ষনে নিলান্তি শুধু তার অনামিকায় রাতুলের পরিয়ে দেওয়া হিরার রিংটি দেখছে ।মূহুর্তকাল পূর্ব থেকে নিলান্তির জীবনে নতুন পরিচয় যোগ হয়েছে । আসছে ১০ ফাল্গুন নিলান্তি-রাতুলের বিবাহ হবে বলে দুই পরিবারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে । দীর্ঘ ৫ বছরের প্রেমের পূর্ণতা পেতে আর কয়েকটি দিন মাত্র বাকি । আজ নিলান্তির চেয়ে বেশি খুশি বোধহয় এ ধরণীতে দ্বিতীয় কেউ নাই । বাসায় যতগুলো ক্যালেন্ডার ছিলো তার প্রত্যেকটির ১৫ জানুয়ারীর ঘরটি নিলান্তি নীল রং দিয়ে ইচ্ছামত আঁকিয়েছে । বিবাহ ঠিক হওয়ায় বাবা-মাকে ছেড়ে যাওয়ার কষ্ট... continue reading

৩৩০

কালের সময় সাধারন নীক

৪ বছর আগে লিখেছেন

গল্প শেষ ফেরা হলো না।

সুমন শহরে থাকে ।সুমনের মা বাবা থাকে গ্রামের বাড়িতে।সুমনের শহরে ছোট ব্যবসা কিন্তু তার স্বপ্ন অনেক বড় । সুমনের মনে অনেক স্বপ্ন একদিন সে বড় লোক হবে তার পর সে একজন সুন্দরি পাত্রী দেখে বিয়ে করবে । তাই সুমন দিন রাত অনেক পরিশ্রম করতে শুরু করলো তার লক্ষ একটাই যে করেই হোক তাকে অনেক বড়লোক হতে হবে ।
সুমন বেশ কিছুদিন হয়েছে শহরে এসেছে অনেক দিন হয় সে বাড়িতে যায়নি।সুমনের মা বাবা শহরে আসলো সুমনের ভালোমন্দ জানার জন্য। সুমনের মা বাবা এখানে এসে সুমনের পরিশ্রম করতে দেখে কিন্তু তাতে তার
কোন সুফল দেখে না তাই মা বাবা চিন্তে করলেন ছেলেকে... continue reading

৪২৬

রাজীব নূর খান

৪ বছর আগে লিখেছেন

ফাইটার

আমার হাতে খুব বেশি সময় নেই। আর কয়েক ঘন্টা পর পোকা গুলো আমার উপর ঝাঁপিয়ে পড়বে। আমার সমস্ত রক্ত খেয়ে ফেলবে। আমার মৃত্যুর আগে বর্তমান পরিস্থিতিটা লিখে রেখে যেতে চাই। যদি আবার কখনও পৃথিবী মানুষ পরিচালনা করতে পারে। তখন আমাদের বর্তমান অবস্থা জানতে পারবে। যদিও অনেক আগেই বিজ্ঞানীরা জানতে পেরেছিল এই পোকা সম্পর্কে। মানুষ জানতে পেরেছে- মানুষের চোখে রয়েছে যখন একক লেন্স তখন পোকামাকড়ের চোখ অথ্যাৎ যৌগ চোখে রয়েছে অনেক ছোট চাক্ষুষ ইউনিট।
৫০১৫ সাল। সারা পৃথিবীতে মানুষের সংখ্যা ৭'শ কোটি। এই ৭'শ কোটি মানুষ এখন ছারপোকাদের হাতে বন্দী। ৫০০ সালে পৃথিবী দখল করে নিয়েছে ছারপোকা। এইসব ক্ষুদ্র পোকাদের কাছে... continue reading

৪৬৭

অনিকেত নন্দিনী

৪ বছর আগে লিখেছেন

জীবনস্রোতে ভাসা মোহনা

স্কুল ছুটি হয়ে গেছে। বাচ্চারা সবাই বাড়ি চলে গেছে। মোহনা স্কুল ভবনের পাঁচতলায় বসে আছে। তার ছুটি হয়নি। শিক্ষকদের ছুটি হয় দেরিতে। সে জানালা দিয়ে বাইরে তাকিয়ে বৃষ্টিতে ভিজে নেয়ে সাফ সুতরো হওয়া কদম গাছ দেখছে। রোদের আলো পড়ে ঝকঝক করছে গাছের পাতাগুলি। বৈশাখ শেষ, যখন তখন হুড়মুড়িয়ে বৃষ্টি নামে। আর কদিন পরেই ফুল ফোটাবে গাছটা। ফোঁস করে একটা দীর্ঘনিশ্বাস ফেলে চোখ ফিরিয়ে নিলো মোহনা। এসব দেখতে আর আগের মতো ভালো লাগেনা। প্রকৃতি আর প্রাকৃতিক সৌন্দর্য নিয়ে মাথা ঘামাবার সময় এখন তার নেই। নিজের জীবন নিয়ে ভেবেই সে অস্থির হয় আজকাল।    মোহনা নিজের জীবন নিয়ে ভাবেনি কখনোই। স্বামী, সন্তান,... continue reading

৩৮৩

ইফ্ফাত রুপন

৪ বছর আগে লিখেছেন

একজন বাবার গল্প

ভাই এই খেলনাটার দাম কত?
মতিন সাহেব বেশ স্পষ্ট করেই তার কথাটা বললেন। কিন্তু দোকানদার এমন একটা ভাব করলো যেন সে মতিন সাহেবের কথাটা শুনতে পায় নি। গলা খাঁকারি দিয়ে মতিন সাহেব আবারো বেশ স্পষ্ট করে জিজ্ঞেস করলেন,
এই যে ভাই খেলনাটার দাম কত?
এইবার দোকানদার আড় চোখে মতিন সাহেবের দিকে তাকাল। মতিন সাহেব মধ্যবিত্ত পরিবারের মানুষ। পৃথিবীতে একমাত্র মধ্যবিত্ত পরিবারের মানুষদেরই খুব সহজে অন্যদের থেকে আলাদা করা যায়। আলাদা করা যায় তাদের পরিহাস কিংবা অবহেলা সহ্য করানোর জন্য।
দোকানদার মতিন সাহেবের কথার বিশেষ কোন গুরুত্ব দিচ্ছে না কারণ সে জানে দাম জিজ্ঞেস করলেও মতিন সাহেব... continue reading

৯২০

কাল বৈশাখী ঝড়

৪ বছর আগে লিখেছেন

ভোগ

আমার জন্ম কি শুধুই ভুল? ভুল হলে তো আর কিছুই করার নেই। কোন রকমে বেঁচে থাকলেই হলো। বেঁচে থাকার দায়ে দু'দানা অন্ন না হয় নষ্ট হলো। তাতে কি? পৃথিবীতে আমি একজনের জন্য আর খাদ্যের ভাণ্ডারে অভাব পরে যাবে না। এটা আমি ভালোই জানি ।শুধু জানি না আমার জন্মের উদ্দেশ্য কি এই পৃথিবীর, এই ছোট্ট নগরীতে ভাবতে ভাবতে পার করে দিলাম দেড়যুগ। ভাবনার মাঝে ছিলো আলস্যের ছড়াছড়ি। না হয় আরো আগে পেয়ে যেতাম প্রশ্নের উত্তরটা। যাচ্ছে চলে আমার বেঁচে থাকা অবিরাম গতিবিহীন। মা একদিন বলেছিলো, আমরা নারী জাতি।আমাদের পৃথিবীতে প্রয়োজন কেন জানিস? ভোগের জন্য।   তখন ভাবতাম এ কেমন ভোগ? গিলে... continue reading

৪৯২